Bangla sms

ত্রিভুজের মজা – সত্যিই মজা – ত্রিভুজ প্রেম !

ত্রিভুজ প্রেম আজকাল বেশ জনপ্রিয়। প্যাকেজ নাটক, সিনেমার কল্যাণে বাচ্চারাও জানে ত্রিভুজের মানে। কিন্তু ত্রিভুজ কি খালি প্রেমেই থাকে?

 

ত্রিভুজ আদিকাল থেকেই আছে। চর্তুভূজ, বর্গাকার, আয়তাকার, বৃত্তাকার এই সব থেকে গঠনে, ব্যবহারে ত্রিভুজের ব্যবহার অনেক বেশি।

 

আমাদের জীবনে ত্রিভুজের ব্যবহার কম নয়! আসলে ত্রিভুজের মতো এতো বহুমুখী অর্থ আর কোথাও নেই। একটা বৃত্ত বা বর্গক্ষেত্র সব দিক থেকেই একই অর্থ তৈরি করে। অন্যদিকে ত্রিভুজকে ঘুরিয়ে দিলেই নানা অর্থ তৈরি হয়। শুধু ঊর্ধ বা অধোমুখী ত্রিভুজেরই যে কতো মানে আছে তার ইয়ত্তা নেই।

 

উদাহরণ হিসাবে বলা যায়, শুধুমাত্র ঊর্ধ ও অধোমুখী ত্রিভুজ যথাক্রমে পুরুষ-নারী, সূর্য-চন্দ্র, পাহাড়-গুহা, উত্থান-পতন, বাবা-মা, শক্তি-শাক্ত এমনি কতো অর্থই না প্রকাশ করে! ত্রিভুজ আসলে বহুমুখী ও বহুমাত্রিক চরিত্র ধারণ করে। ত্রিভুজ সৃষ্টিশীল, শৈল্পিক।

 

সবার আগে ত্রিভুজের পোশাকি সংজ্ঞাটা খেয়াল করা যাক। তিনটি সরল রেখা দ্বারা সীমাবদ্ধ ক্ষেত্রকে ত্রিভুজ বলে। তিনটা বাহু আর তিনটা কোণ থাকবে। জ্যামিতিক এই সংজ্ঞা প্রায়োগিক ও তাত্ত্বিক প্রশ্নে আরও বৃহৎ।

 

স্থাপত্যকলায় ত্রিভুজ আজও বিস্ময়। মিশরের পিরামিড থেকে শুরু করে প্যারিসের আইফেল টাওয়ারে ত্রিভুজের আদল লক্ষ্য করা যায়। আমাদের জাতীয় স্মৃতিসৌধেও ত্রিভুজের আকৃতি লক্ষ্য করি। এমনকি আমাদের প্রতিদিনের খাদ্য তালিকাতেও ত্রিভুজের ব্যবহার লক্ষ করা যায়।

ত্রিভুজ প্রেম

ধরুণ এক টুকরো পনির, এক ফালি তরমুজ কিংবা পিজ্জা তো ত্রিভুজের আকারই পায়। সমোচা, পেটিস থেকে স্যান্ডউইচেও ত্রিভুজের আকার বিদ্যমান। তিন কোণা ডাকটিকেটের জন্য আমাদের সবার ছোটবেলাই তো লালায়িত ছিল। আজকাল অনেক বাড়িতেই ত্রিভুজ আকারে টেবিল কিংবা ওয়াল সেলফ দেখা যায় ড্রয়িংরুমে। মেয়েদের কানের দুল কিংবা গলার লকেটেও ঝুলছে ত্রিভুজ।

 

ত্রিভুজত্রয়ী সংখ্যার প্রতিনিধি। ত্রয়ী বা তৃতীয় এমন এক মৌলিক সংখ্যা যা ছড়িয়ে আছে বিশ্বময়।

 

হিন্দু ধর্মশাস্ত্রে ব্রহ্মা, বিষ্ণু, শিব মিলে ত্রিমূর্তি, স্বরস্বতী, লক্ষ্মী, পার্বতী মিলে ত্রিদেবী। বুদ্ধ ধর্ম মতেবুদ্ধ, ধর্ম, সংঘকে ত্রিরত্ম বলা হচ্ছে। খ্রিস্ট্রিয় মতে পিতা, পুত্র ও পবিত্র আত্মার মিলনেই সৃষ্টি হয়েছে ত্রিনীতি তত্ত্বের। ইসলামে তিন সংখ্যার গুরুত্ব অসীম। হাদিসের বয়ান মতে, আল্লাহ বেজোড় সংখ্যা পছন্দ করেন। ইসলামে তিনজনের সিদ্ধান্তকে গুরুত্ব দেয়া হয়, যে কোনো কাজ বা কথা তিনবার করলে সেটাকে চূড়ান্ত মনে করা হয়।

 

সব ধর্ম ও মরমীবাদে তিনের আলাদা গুরুত্ব আছে। পিথাগোরাস তো বিশ্বাস করতেন সংখ্যার আত্মা আছে এবং জাদুকরি ক্ষমতা আছে, তার মধ্যে তিন সংখ্যাটি সবচেয়ে জাদুকরি। তিন সংখ্যাটি শুভ এর প্রতীক। এক যদি শক্তি হয়, দুই হয় মিলন, তাহলে তিন হলো সত্যিকার জ্ঞানের মিলন।

 

ত্রিভুজের তিন বাহু কিংবা তিন কোণ একই সঙ্গে বহু অর্থ ধারণ করে। শরীর-মন-আত্মা, মা-বাবা-সন্তান, স্বর্গ-মর্ত্য-পাতাল, অতীত-বর্তমান-ভবিষ্যৎ, শক্তি-মেধা-ভালোবাসা, ভাবনা-বোধ-আবেগ, প্রেম-জ্ঞান-সত্য, সৃষ্টি-সংরক্ষণ-প্রলয়, আগুন-বাতাস-পানি এ সবই তিনের খেলা। ত্রিযাম, ত্রিভুবন, ত্রিবেণী, ত্রিমোহনা এমন কতো শব্দবন্ধই না তিনের গুরুত্ব বহন করে!

 

আমাদের কাছে তিন অথবা ত্রিভুজ সৃষ্টিশীলতা-বহুমুখীনতা-ঐক্যতার প্রতীক। ধন্যবাদ সবাইকে – ভাল লাগলে আপনার প্রিয়জনকে শেয়ার করতে ভুলবেন কি কিন্তু ……..