Bangla sms

‘রসিক পুরুষ’ নারীদের বেশি পছন্দ – কারণ জানুন

প্রতিটি সম্পর্কে বিশ্বাস ও ভালোবাসা থাকা একান্ত জরুরি। এই দুটি উপাদান ছাড়া কোন সম্পর্ক বেশিদিন টিকে না। নতুন নতুন প্রেম ও বিয়েতে ভালবাসা একটু বেশি থাকে। দিন দিন এই ভালোবাসার পরিমাণ কিছুটা হলেও কমে যায়। কিন্তু রসিক মানুষের রসিকতা কখনও কমে না, যা সম্পর্কের ক্ষেত্রে অনেক প্রভাব ফেলে।

রসিক পুরুষরা মেয়েদের মন জয় করতে বেশ পটু হয়ে থাকেন, একারণেই ‘রসিক পুরুষ’ নারীদের বেশি পছন্দ

যে সব ছেলেদের ‘সেন্স অফ হিউমার’ আছে, বন্ধুভাবাপন্ন এবং বুদ্ধিমান, তাদের প্রতি মেয়েরা বেশি আকৃষ্ট হয়।

ইউনিভার্সিটি অফ জুরিখের মনোবিজ্ঞান বিভাগের মনোবিজ্ঞানি রেনে প্রোয়ার এবং লিসা ওয়াগনার বলেন, “কিছু চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য প্রেমিক বা জীবন সঙ্গী বাছাইয়ের ক্ষেত্রে মেয়েদের বেশি নজর কাড়ে। এমন কি ছেলেদের শিক্ষাগত যোগ্যতা, বংশ পরিচয় এবং ধর্মীয় দৃষ্টিভঙ্গির তুলনায়, ছেলেটি কতটা রসিক, বুদ্ধিমান এবং বন্ধুভাবাপন্ন এ বিষয়গুলোর প্রতি মেয়েরা বেশি নজর দিয়ে থাকেন।

পেনসালভানিয়া স্টেট ইউনিভার্সিটির নৃতত্ত্ববিদ গ্যারি চিক বলেন, প্রাপ্ত বয়স্কদের মধ্যে যৌনসঙ্গী বেছে নেওয়ার ক্ষেত্রে রসিক ও বন্ধুভাবাপন্ন পুরুষরাই এগিয়ে থাকেন মেয়েদের পছন্দের তালিকায়।

মেয়েদের কাছে পুরুষের এই আচরণ কম আক্রমনাত্বক লাগে, আর পুরুষদের কাছে মনে হয় নারীর জন্য জীবনীশক্তি।

এ গবেষণার জন্য জার্মানি, সুইজারল্যান্ড এবং অস্ট্রিয়ার ৩২৭ জন তরুণ বয়সির উপর জরিপ করা হয়। জরিপে তাদেরকে ১৬টি গুণাবলীর একটি তালিকা প্রদান করা হয়। আর সেখান থেকে তারা তাদের সঙ্গীদের মধ্যে কি ধরনের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য চান সেইগুলো উল্লেখ করতে বলেন।

ফলাফলে দেখা যায়, মেয়েরা তার সঙ্গীর মধ্যে ‘সেন্স অফ হিউমার’ই বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকেন। অন্য দিকে ছেলেরা সঙ্গীর মধ্যে ভিন্ন ধরনের ‘ব্যক্তিত্ব’ বেশি পছন্দ করে থাকেন।

গবেষণাটির লেখক বলেন, ‘যাদের সেন্স অফ হিউমার বেশি তারা সব কিছু নিয়েই মজা করতে পারেন এবং সব সময়ই হালকা মেজাজে থাকেন। তাছাড়া তাদের মধ্যে অন্যদের তুলনায় সৃজনশীলতাও বেশি থাকে।”

আসলে যারা কথায় কথায় মজা করতে পারেন তারা যে কোনো চ্যালেঞ্জ সহজভাবে নিতে পারেন। নতুন নতুন কাজ করতে এবং অভিজ্ঞতা নিতে পছন্দ করেন। তাছাড়া অন্যদের সঙ্গে মিশে যেতেও তাদের বেশি সময় লাগে না।

তাই প্রোয়ার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, “ছেলেদের মধ্যে বিশেষ ওই বৈশিষ্ট্যগুলো সম্পর্ক আরও সুন্দর করে। আর তাই মেয়েরা তাদের সঙ্গীর মধ্যে ওই ধরনের গুণাবলীগুলো বেশি পছন্দ করে থাকেন।”

আমাদের সকলের জীবনে বিভিন্ন ধরণের সমস্যা রয়েছে। এসকল বিষয়ের ঊর্ধ্বে থেকে জীবনকে হাসিখুশি করে রাখতে পারলে আপনার সার্থকতা সকল ক্ষেত্রে বিরাজ করবে। তাই এখনকার নারীরা রসিকতা করতে পারে এরকম পুরুষ বেশি পছন্দের। এর কারণ নিচে ব্যাখ্যা করা হল – একটু দেখুন ‘রসিক পুরুষ’ নারীদের বেশি পছন্দ অর্থাৎ যে কারণে নারীদের পছন্দ ‘রসিক পুরুষ’।

রসিক পুরুষ

  • ১. তাদের সাথে জীবন একটি আনন্দভ্রমন বলে মনে হয়। তাদের চিন্তা-ধারণা অনেকের মাঝে অসাধারণ থাকে। তারা জীবনকে মন থেকে উপভোগ করে থাকেন। তারা সবসময় আপনাকে সুখী রাখার চেষ্টা করবে। এতে তার সাথে কাটানো প্রতিটি মুহূর্ত আপনাকে আনন্দ দিবে।
  • তারা যেকোনো মুহূর্তকে অনেক কঠিন থেকে সহজ করে ফেলতে পারে। আপনি যখন কোন বিষয় নিয়ে অনেক বেশি চিন্তিত থাকবেন, দেখবেন কিছু সময়ের মধ্যে আপনাকে সে চিন্তামুক্ত করে দিবে। তারা জানেন কখন কি করলে আপনার মুড ভাল হয়ে যাবে।
  • তাদের মাঝে আত্মবিশ্বাসের কমতি থাকে না। মেয়েরা সবসময় আত্মবিশ্বাসী মানুষ পছন্দ করেন। তারা তাদের প্রতিটি কাজ অনেক বিশ্বাসের সাথে করেন এবং সহজে সফলতা পেয়ে যান। যারা সফল হয় না, তারা ভেঙ্গে পড়েন না। তারা আরও ভালভাবে সামনের দিকে এগিয়ে যাবার লক্ষ্য স্থির করে।
  • রসিক পুরুষের সাথে জীবন নির্বাহ করা অনেক সহজ হয়ে যায়। আপনার কাছে তখন নিজের জীবন অনেকটা সিনেমার কাহিনীর মত মনে হতে পারে। তারা তাদের সকল সম্পর্কের বিষয়ে খুব ভালভাবে অবগত থাকে। তারা খুব ভাল পিতা হন। সন্তানের কাছে তারা অনেক বেশি প্রিয় হন।
  • যারা সারাক্ষণ হাসেন, তারা যে কখনও গম্ভীর হন না, তা কিন্তু নয়। তারা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের প্রতি অবশ্যই অনেক গুরুত্ব দিয়ে থাকেন। তারা সম্পর্কের ব্যাপারে সমানভাবে উৎসাহী হয়ে থাকেন। তারা যেকোনো মূল্যে আপনাকে সর্বদা খুশি রাখার আপ্রাণ চেষ্টা করবেন।

আরো একটু বাড়িয়ে বলি, নারী-পুরুষের সম্পর্কের ক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দিক হচ্ছে একে অপরের সঙ্গে কতোটা স্বাচ্ছন্দ্যপূর্ণ। বেশিরভাগ নারীর তাদের জীবনে এমন একজন পুরুষকে কামনা করে যার সঙ্গে সারা জীবন হাসতে হাসতে কাটিয়ে দিতে পারবে। এজন্যই নারীদের প্রথম পছন্দ রসিক পুরুষ।

একঘেয়ে নয়: রসবোধসম্পন্ন পুরুষেরা একঘেয়ে হন না। তাঁদের স্বতঃস্ফূর্ততা সংক্রামক এবং এমন পুরুষের সংস্পর্শে তরুণী-যুবতীরাও স্কুল বালিকার মতো হেসে কুটি কুটি হয়ে লুটিয়ে পড়েন। এমন পুরুষের সঙ্গে কোথাও ঘুরতে যাওয়া খুবই আনন্দের। নির্বিকার চিত্তে একটা গাছের পাতা পড়ায়ও হেসে উঠতে পারেন তাঁরা। এমন পুরুষের সঙ্গে অভিসার অবিরাম উত্তেজনাময়, কেননা আপন স্বভাবেই তাঁরা ক্লান্তিহীন এবং সঙ্গীকেও সারাক্ষণ ক্লান্তিহীন করে রাখেন।

সৃষ্টিশীল: ভালো রসবোধসম্পন্ন মানুষেরা আসলে অনেক বিষয়ে এতটাই জানেন যে, অনায়াসেই সৃজনশীল উপায়ে তাঁরা সেসব সরসভাবে তুলে ধরতে পারেন।

সামাজিক: রসিক লোকেরাই যেকোনো উৎসবে অনুষ্ঠানের প্রাণভোমরা হয়ে ওঠেন। যেকোনো গুমোট নীরবতায় হাসির ফোয়ারা বইয়ে দিতে যথাসময়ে দারুণ বুদ্ধিদীপ্ত কৌতুক করে ফেলতে পারেন তাঁরা। এমন লোককে কোনো আচার-অনুষ্ঠানে অচেনা লোকজনের মধ্যে ছেড়ে যেতেও কোনো সমস্যায় পড়তে হয় না সঙ্গীদের। কাজ সেরে ফিরে এসে হয়তো দেখবেন যে, ওই আসরটা এখন তিনিই মাতাচ্ছেন।

ভালো পর্যবেক্ষক: সত্যিকারের রসিক ব্যক্তিরা সমাজ-সংসারকে খুবই ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করতে পারেন বলেই তাঁরা সেসব নিয়ে রসিকতাও করতে পারেন। চারপাশে কী ঘটছে, তা বুঝতে না পারলে যেকোনো কিছু নিয়েই তাঁরা কৌতুক করবেন কী করে।

সাবলীল: ভালো রসবোধসম্পন্ন মানুষের পাশে আপনি সব সময়ই সাবলীল থাকতে পারবেন। তাঁর উপস্থিতি আপনার ওপর বাড়তি চাপ তৈরি করবে না। নারীরা এমন মানুষের সঙ্গে থাকলে নিরাপদ ও সাবলীল বোধ করে।

বন্ধুদের বন্ধু: রসিক মানুষেরা মিশুক হন। তাই এমন পুরুষেরা সহজেই নারী সঙ্গীটির বন্ধুদের বন্ধু হয়ে উঠতে পারেন। আর এমন মানুষের সঙ্গ কার না ভালো লাগে, ফলে বন্ধুরাও তাঁকে গ্রহণ করে নেয়।

আত্মবিশ্বাসী ও আবেগী: একজন প্রকৃত রসিক মানুষই কেবল নিজেকে নিয়ে রসিকতা করেও চারপাশের মানুষকে আনন্দ দিতে পারেন। খুব আত্মবিশ্বাসী না হলে এমনটা করা সহজ নয়। তাঁকে দেখে হয়তো অতটা আত্মবিশ্বাসী মনে না-ও হতে পারে, কিন্তু তিনি অবশ্যই নিজেই নিজেকে নিরাপত্তা দিতে সক্ষম। তবে, মনে রাখা দরকার তাঁর রসবোধের মতোই আবেগটাও কিন্তু তীব্র, হয়তো তিনি তা প্রকাশ করেন না। তাই সাবধান, এমন মানুষকে জেনেশুনে কোনো কষ্ট দেবেন না যেন, তিনি আবেগী হয়ে উঠলে সামলানো মুশকিল হবে।

মুখে হাসি ফোটানো: এমন মানুষের সঙ্গে আপনি কখনোই রাগ করে থাকতে পারেন না। তিনি নিজে হাসুন বা না-ই হাসুন, সঙ্গীর মুখে হাসি ফোটাবেনই। তাঁর ছোট্ট একটা কথাতেই হয়তো আপনি ভুলেই যাবেন, কেন তাঁর সঙ্গে রাগ করেছিলেন। হাসাতে হাসাতে কাঁদিয়ে ফেলে আপনার ভেতরের রাগ অভিমান ঝরিয়ে ফেলার ক্ষমতা রাখেন তিনি।

ধন্যবাদ ……. ভাললাগলে শেয়ার করুন।